• কোম্পানীগঞ্জ

    ধলাই নদীতে চাঁদাবাজদের মারধরে আসাদুল্লাহর মৃত্যু

      প্রতিনিধি ১৮ আগস্ট ২০২১ , ২:১৯:৪০ প্রিন্ট সংস্করণ

    কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধি
    মোঃ মাহমুদুল হাসান নাঈম

    সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ধলাই নদীর বালু মহালে জায়গার মালিকানা দাবি করা চাঁদাবাজদের চাঁদা না দেওয়ায় মারধরে আহত হোন আসাদুল্লাহ (২৫) নামের এক বালু ব্যবসায়ী। সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোরে তার মৃত্যু হয়। সে উপজেলার পূর্ব ইসলামপুর ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের কফিল উদ্দিনের ছেলে।

    নিহতের ভাই শহিদুল্লাহ জানান, ১৬ আগষ্ট সকালে সে ও তার ভাই নিহত আসাদুল্লাহ ধলাই নদীর ঢালারপাড় এলাকার বালু মহাল থেকে স্টিলের ভলগেটে বালু লোড করতে যায়। সেখানে নদীর মধ্যে জায়গার মালিকানা দাবি করে চাঁদাবাজি করতে থাকা ঢালারপাড় গ্রামের কয়েকজনের সাথে বাকবিতন্ডা শুরু হয় তাদের। ফুট প্রতি ৩ টাকা না দিলে তারা বালু লোড করতে দিবে না। কিন্তু আসাদুল্লাহ চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে উপস্থিত কয়েকজন চাঁদাবাজ তাকে মারধর করেন। বিষয়টি স্থানীয় কয়েকজন এলাকাবাসী প্রাথমিক ভাবে ৬ হাজারের পরিবর্তে ২ হাজার টাকা দিয়ে সমাধান করে দেন। এর কিছু সময় পর সকাল ১০ টায় চাঁদাবাজদের পক্ষের আরো কয়েকজন লোককে ফোন করে নদীতে নেওয়ায় উপস্থিত চাঁদাবাজরা। তাদের দাবিকৃত টাকা না পাওয়ায় আসাদুল্লাহকে নৌকার মধ্যে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে মারধর করে। তাদের আঘাতে মাথায় মারাত্মক জখম হয়ে আসাদুল্লাহ নৌকাতেই অজ্ঞান হয়ে পড়ে। এসময় তার সাথে থাকা লোকজন তাকে চিকিৎসার জন্য সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। ২ দিনেও তার জ্ঞান ফিরেনি। বুধবার ভোর ৪ টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

    কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি কেএম নজরুল জানান, লিজকৃত জায়গায় বালু উত্তোলন করার সময় জায়গার মালিকানা দাবি করে টাকা নিতে আসে কয়েকজন। তাদের দাবিকৃত সব টাকা পরিশোধ না করায় এই মারামারি হয়েছিল। এ ঘটনায় নিহতের পিতা বাদি হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। আমরা প্রয়োজনীয় আইনি প্রদক্ষেপ গ্রহণ করব।

    আরও খবর

    Sponsered content