ঢাকা,২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

সিলেটে তালামীযে ইসলামিয়ার বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ সম্পন্ন

inbound2566160852756903234.jpg

মুহাম্মদ মামুনুর রশিদ নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
মসজিদুল আকসা ও নিরীহ ফিলিস্তিনিদের উপর হামলা,নির্যাতন ও হত্যার প্রতিবাদে বাংলাদেশ আনজুমানে তালামীযে ইসলামিয়া সিলেট নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ করেছে।
হাজার হাজার মানুষের অংশগ্রহনে আজ ২১ মে শুক্রবার জুম’আর নামাজের পর সোবহানীঘাটস্থ হাজী নওয়াব আলী জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে থেকে বের হয়ে স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত করে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ঐতিহাসিক কোর্ট পয়েন্টে সমাবেশ মিলিত হয়।সমাবেশে সিলেট পূর্ব জেলার সাধারণ সম্পাদক হুসাইন মোহাম্মদ বাবুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় মুহতারাম সাধারণ সম্পাদক ছাত্র নেতা মুজতবা হাসান চৌধুরী নুমান। তিনি তার বক্তব্যে বলেন,ফুলতলির সন্তানেরা যেখানে অবস্থান নেয় সেখানেই বিজয় আসে।আজকে ফিলিস্তিনিদের বিজয় হওয়া মানে আমাদের বিজয়। জাতিসংঘ নিরব কেন?ঐ জালিম জাতিসংঘ আজ নিরব ভূমিকা পালন করছে। যখন মুসলমানরা মার খায় তখন জাতিসংঘ নিরব ভূমিকা পালন করে। আর এর প্রতিবাদে মুসলমানরা সোচ্চার হলে তাদেরকে সন্ত্রাসী আখ্যা দেওয়া হয়।তিনি ধিক্কার জানান যারা ইসরায়িদের মদদ দিচ্ছে। স্বাধীনতা মানুষের জন্মগত অধিকার।নিরীহ ফিলিস্তিনিদের উপর হামলা চালিয়ে তাদের স্বাধীনতাকে খর্ব করা হচ্ছে। এহেন ন্যাক্কারজনক হামলার প্রতিবাদে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি।
মুসলমানদের উপর অমানবিক নির্যাতনের জন্য ইসরায়েলিদের ক্ষমা চেয়ে নিতে হবে।উক্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন তালামীযে ইসলামিয়ার সদ্য সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ছাত্রনেতা আখতার হুসাইন জাহেদ,তিনি তার বক্তব্যে বলেন জাতিসংঘ আজ নিরবতা পালন করছে। তিনি আরও বলেন জাতিসংঘ ইসরাইলকে মদদ দিচ্ছে। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন গণমানুষের সংগঠন বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহর সিলেট মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক জননেতা আজির উদ্দিন পাশা, চলমান পরিস্থিতির উপর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন তালামীযের নেতৃবৃন্দ ।
উক্ত মিছিল -সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুরুল করিম মহসিন,বাংলাদেশ আনজুমানে আল ইসলাহর তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মাওলানা সিরাজুল ইসলাম ফারুকি,তালামীযে ইসলামিয়ার সকল স্তরের কর্মী ও সদস্য বৃন্দ।পরিশেষে সিরাজুল ইসলাম ফারুকী হুজুরের দোয়ার মাধ্যমে মিছিল পরবর্তী সমাবেশ সমাপ্ত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top