ঢাকা,১৬ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দাউদপুরে সংসদ সদস্য প্রার্থী আতিককে ‘অবাঞ্ছিত’ নেতাকর্মীদের পদত্যাগ

received_212111970861333.jpeg

সিলেটের দক্ষিণ সুরমার দাউদপুরে সিলেট-৩ (দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জ) আসনে উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মনোনিত পার্থী দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য আতিকুর রহমান আতিককে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে। এসময় জাপা নেতাকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে দল থেকে পদত্যাগ করেন।
গত ৯ আগষ্ট সোমবার রাতে দাউদপুর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টি অঙ্গ সংগঠনের মতবিনিময় সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।
সভায় মোগলাবাজার থানা জাতীয় পার্টির সভাপতি মোঃ দেলোওয়ার হোসেন মেম্বার ও যুগ্ম সম্পাদক মনছুর আহমদ পদত্যাগ করেন।
সভায় বক্তারা বলেন, প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিকের আচরণের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে জাপা নেতাকর্মীরা আজ কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছেন। দীর্ঘদিন লাঙ্গল মার্কার পক্ষে কাজ চালিয়ে গেছি, কিন্তুু অধক্ষ্য প্রার্থীর কারনে নেতাকর্মীরা দল ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন।
সভায় সিলেট ৩ আসনের সাংসদ সদস্য প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিককে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করেন বক্তারা।
জাপা নেতা দেলোওয়ার হোসেন মেম্বার এর সভাপতিত্বে সভায় দাউদপুর ইউনিয়নের প্রতোক ওয়ার্ডের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক সহ অসংখ্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
সভার শেষ পর্যায়ে সভায় উপস্থিত হয়েছেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা ও সিলেট জেলা শাখার সদস্য সচিব উসমান আলী চেয়ারম্যান।
তিনি ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের শান্ত্বনা দিয়ে বলেন, কেন্দ্রীয় মনোনিত প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিকের পক্ষে আমরা কাজ করছি, রাজনীতি কররার সুবাদে অনেকের মত পার্থক্য ও ভুলভ্রান্তি থাকতেই পারে। যারা দুঃখ কষ্ট পেয়েছেন তাদেরকে নিয়ে বসে আমরা এইটা সমাধান করব। তিনি সকলকে লাঙ্গল মার্কার পক্ষে কাজ করার আহবান জানান।
সভাস্থলে সভার সভাপতি দেলোওয়ার হোসেন মেম্বার পদত্যাগ পত্র সিলেট জেলা শাখার সদস্য সচিব উসমান আলী চেয়ারম্যান এর হাতে দিয়ে পদত্যাগ করেন।
সভায় বক্তারা আরো বলেন, জাতীয় পার্টির প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিক মনগড়া ভাবে ইচ্ছেমতো নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। গত শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর দাউদপুর ইউনিয়নে কয়েকটি নির্বাচনী সভা ছিল। কিন্তু আতিক জাতীয় পার্টির কাউকে কিছু না জানিয়েই সভাগুলোন বাতিল করেন। স্বেচ্ছাসেবক দলের কতিপয় নেতাকর্মী মোটর সাইকেলে গিয়ে জাতীয় পার্টির সভার চেয়ার সহ আসবাব পত্র নিয়ে আসেন। প্রার্থীর এরকম অবিবেচক কান্ডের কারণে নেতারা সংগঠন থেকে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং আতিকুর রহমান আতিককে ‘অবাঞ্ছিত’ ঘোষণা করেন।
সভাপতির বক্তব্যে মোগলাবাজার থানা জাতীয় পার্টির সভাপতি দেলোওয়ার হোসেন মেম্বার বলেন, দলীয় প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিকের কাছে দলের ত্যাগী নেতাকর্মীরা অনেক অমুল্যায়ন ও অপমানিত হয়েছেন। তার মধ্যে আমিও একজন, প্রার্থীর এমন অসৌজন্যমূলক আচরণের কারণে জাতীয় পার্টি থেকে পদত্যাগ করলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

scroll to top